দৈনন্দিন বিজ্ঞান

ট্যাটুর ক্ষতিকর দিকসমূহ

আগের পর্বে আমরা জেনেছি ট্যাটু কিভাবে করা হয়, সামোয়ান সংস্কৃতিতে ট্যাটু বা উল্কির প্রভাব এবং এটি কিভাবে স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী ভূমিকা পালন করে।
এই পর্বে আমরা জেনে নিব এর আরও কিছু উপকারী দিক।
সবকিছুর যেমন ভালো দিক আছে তেমনি খারাপ দিকও আছে। এই কথা আমাদের ভুলে গেলে চলবে না। ট্যাটুরও কিছু মারাত্মক ক্ষতিকর দিক আছে। ট্যাটুতে যে কালি ব্যবহার করা হয় তা স্কিনের জন্য বিপর্যয় ডেকে আনতে পারে।

কেপটাউনের চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ ইয়ান ওয়েবস্টার হেলথ 24-কে জানিয়ে ছিলেন যে, শুধুমাত্র পেশাদার ট্যাটু আর্টিস্টদের দ্বারাই ট্যাটু করানো উচিত। তাছাড়া ট্যাটুতে যেই যন্ত্রপাতি, সুই ব্যবহার করা হয় তা যদি জীবাণুমুক্ত না করে ব্যবহার করা হয় তবে ট্যাটু শুধু ঐ ব্যক্তির স্কিনের জন্য কোন উপকার তো হবেই না বরং ক্ষতি ডেকে আনবে। তাছাড়া ট্যাটু পার্লারটি পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন কিনা সে বিষয়েও বিশেষভাবে খেয়াল রাখতে হবে।
এইচআইভি বা এইডস এবং হেপাটাইটিসের মতো মারাত্মক সংক্রমণের পাশাপাশি অ্যালার্জির প্রতিক্রিয়াগুলোও দেখা দিতে পারে। কেননা অনেকেই ট্যাটুর ক্ষতিকর দিকের কথা বিবেচনা না করে পূর্ব পরিকল্পনা ছাড়াই ট্যাটু করে ফেলেন।

ট্যাটুর আড়ালে ঢাকা পড়তে পারে স্কিন ক্যান্সার।
হার্ভার্ড হেলথ পাবলিকেশনের সম্পাদক ডাঃ রবার্ট শর্মলিং বলেছেন, ট্যাটুর কালি তিলের পরিবর্তনগুলো খুব সহজে আড়াল করে ফেলতে পারে, ফলে পরবর্তীতে কোনো রোগ নির্ণয় করা চিকিৎসকদের জন্য মুশকিল হয়ে পড়ে। কালিটি শরীরের গভীরের টিস্যুগুলোতে ছড়িয়ে যেতে পারে। যার ফলে মেটাস্ট্যাটিক মেলানোমার বিস্তার সাদৃশ্য হতে পারে

ট্যাটু আমাদের শরীর ঘামানোর প্রক্রিয়াতে ব্যাঘাত ঘটায়।
একজন মানুষ সাধারণত দৈনিক যে পরিমাণ ঘামায়, তার চেয়ে ৫০% কম ঘামায় ট্যাটু আঁকানো শরীর।
ঘাম হওয়া শরীরের অন্যান্য স্বাভাবিক প্রক্রিয়ার মতোই একটি প্রক্রিয়া। ঘাম আমাদের শরীরের অভ্যন্তরের ক্ষতিকর তরল বর্জ্যগুলো বের করে দেয়।
মিশিগানের আলমা কলেজের ফিজিওলজি বিভাগের অধ্যাপক মরি লুয়েটকেমিয়ার বলেছেন, “ট্যাটুযুক্ত ত্বক থেকে নির্গত ঘামে থাকা সোডিয়াম তুলনামূলক বেশি ঘনীভূত অবস্থায় থাকে“। আমাদের ত্বক সাধারণত ঘামের সাথে বের হওয়া সোডিয়াম এবং ইলেক্ট্রোলাইটগুলো পুনরায় শোষণ করে নেয়। কিন্তু উল্কি করা ত্বকে এই শোষণ প্রক্রিয়া সম্ভব হয় না। কারণ শোষণপ্রক্রিয়ার ছিদ্রগুলো অবরুদ্ধ থাকে।

ব্যাক্টেরিয়াল ইনফেকশনের ঝুঁকি বাড়ায় :

ট্যাটু স্ট্রেপ্টোকক্কাস পাইজিনেস দ্বারা সৃষ্ট ব্যাকটিরিয়া সংক্রমণের কারণ হতে পারে। যার ফলে ইমপিটিগো(Impetigo), এরিসাইপ্যালাস(Erysipelas)
এবং সেপটিসেমিয়া(Septicaemia) হতে পারে। স্টাফাইলোকোক্কাস অ্যারিয়াস এর কারণে বিষাক্ত শক সিনড্রোম হতে পারে। ট্রেপোনমা প্যালিডাম সিফিলিস হতে পারে এবং মাইকোব্যাকটেরিয়াম লেপ্রাই যা কুষ্ঠরোগ এর কারণ হতে পারে।

অ্যালার্জির প্রতিক্রিয়া :

ট্যাটু বিভিন্ন রঙের যেমন লাল, সবুজ, হলুদ এবং নীল ইত্যাদি রঙের হয়। আর রঙগুলোতে বিভিন্ন কেমিকেল ব্যবহার করার ফলে ট্যাটু অ্যালার্জিযুক্ত ত্বকে প্রতিক্রিয়া হিসেবে দেখা দিতে পারে। যেমন ট্যাটুযুক্ত ত্বকে চুলকানি, ফুসকুড়ি লক্ষণ হিসেবে প্রকাশ পেতে পারে।

স্কিন ইনফেকশন :

ট্যাটু করানোর পর স্কিন অনেক বেশি সেনসিটিভ হয়ে যায় পুরোপুরি নিরাময় না হওয়া পর্যন্ত। তখন একটু অসতর্কতার ফলে খুব সহজেই স্কিন ইনফেক্টেড হয়ে পড়ে।

রক্তবাহিত সংক্রামক রোগ :

ট্যাটু তৈরিতে ব্যবহৃত সরঞ্জামগুলো যদি পূর্বে কোনো সংক্রামক রোগে আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরে ব্যবহার করা হয় এবং তা পুরোপুরিভাবে জীবাণুমুক্ত করা না হয়, তাহলে
ঐ সরঞ্জামাদি ব্যবহারের ফলে আপনি বিভিন্ন রক্তবাহিত সংক্রামক রোগে আক্রান্ত হতে পারেন। ম্যাথিসিলিন প্রতিরোধী স্টাফাইলোকক্কাস অরিয়াস (এমআরএসএ), হেপাটাইটিস বি এবং হেপাটাইটিস সি সহ বিভিন্ন সংক্রামক রোগ দেখা দিতে পারে।

এমআরআই কমপ্লিকেশন :

স্থায়ী ট্যাটু বা অস্থায়ী ট্যাটুর কারণে ম্যাগনেটিক রেজোন্যান্স ইমেজিং (এমআরআই) পরীক্ষা চলাকালীন ট্যাটু অঞ্চলে ফোলাভাব বা জ্বালাপোড়া ভাব লক্ষণ হিসেবে প্রকাশ পেতে পারে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে, ট্যাটুর রঞ্জকপদার্থ এমআরআই ফটোতে প্রভাব বিস্তার করতে পারে অর্থাৎ এই রঞ্জক পদার্থের জন্য এমআরআই ফটো দেখে রোগ নির্ণয় মুশকিল হয়ে পড়ে।

ট্যাটু করানোর পূর্বে যেসব বিষয়ে লক্ষ রাখতে হবে

  • উল্কি কে করে দিচ্ছেন? একটি সুপরিচিত ট্যাটু স্টুডিও যারা শুধুমাত্র সঠিকভাবে প্রশিক্ষিত কর্মচারীদের নিয়োগ দেয় এমন স্টুডিও থেকে ট্যাটু করাবেন।
  • ট্যাটু শিল্পী কি গ্লাভস পরেছেন? নিশ্চিত করুন যে ট্যাটু শিল্পী তার হাত জীবাণুমুক্ত করেছে এবং ট্যাটুর প্রতিটি স্টেপের জন্য আলাদা আলাদাভাবে সুরক্ষিত গ্লাভসগুলোর একটি নতুন জোড়া ব্যবহার করছেন।
  • ট্যাটু শিল্পী কি উপযুক্ত জীবাণুমুক্ত সরঞ্জাম ব্যবহার করছেন? ট্যাটুর প্রক্রিয়াগুলো শুরুর আগে উলকি শিল্পী যে সিলড প্যাকেজগুলো থেকে সুই এবং টিউবগুলো ব্যবহার করছে তা নিশ্চিত করুন। যে কোনও রঙ, ট্রে, সুই,টিউব ইত্যাদি যে একাধিক মানুষের ব্যবহার্য না তা নিশ্চিত হোন।
  • উলকি শিল্পী কি ননডিসপোজেবল সরঞ্জামকে জীবাণুমুক্ত করছেন? ট্যাটু করানোর পূর্বে নিশ্চিত করুন যে উলকি শিল্পী তার কাস্টোমারদের জন্য সমস্ত ননডিস্পোজেবল সরঞ্জাম নির্বীজকরণ করতে একটি অটোক্লেভ মেশিন ব্যবহার করছে। অটোক্লেভ দিয়ে নির্বীজকরণ করা যায় না এমন যন্ত্রপাতি এবং সরঞ্জামগুলো যেমন ড্রয়ারের হ্যান্ডেলগুলো, টেবিল এবং লিকুইড পদার্থ রাখার পাত্র ইত্যাদি প্রতিটি জিনিস ব্যবহারের পরে বাণিজ্যিক জীবাণুনাশক বা ব্লিচ দ্রবণ দিয়ে নির্বীজকরণ করা উচিত।

যেভাবে ট্যাটুর যত্ন নিবেন

আপনি কিভাবে আপনার ট্যাটুর প্রতি যত্নশীল হবেন তা নির্ভর করে আপনি যে কাজ করছেন তার ধরণ এবং মাত্রার উপর।

  1. উলকিযুক্ত ত্বক পরিষ্কার রাখুন। প্লেইন সাবান এবং জল ব্যবহার করুন এবং ট্যাটুযুক্ত স্থান স্পর্শ করবেন আলতো হাতে। ঝর্ণা(শাওয়ার চলাকালীন, নতুন উলকিযুক্ত ত্বকে সরাসরি জলের স্রোত এড়িয়ে চলুন। যতটা সম্ভব ট্যাটুযুক্ত স্থান ড্রাই রাখুন।
  2. ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। ট্যাটুযুক্ত ত্বকের জন্য লাইট ময়শ্চারাইজার চ্যুজ করুন এবং দিনে কয়েকবার তা ব্যবহার করুন।
  3. সূর্যের সরাসরি আলো এড়িয়ে চলুন। ট্যাটুযুক্ত অঞ্চলটি কমপক্ষে কয়েক সপ্তাহের জন্য সূর্যের আলো থেকে ঢেকে রাখুন।
  4. সাঁতার কাটা এড়িয়ে চলুন। আপনার ট্যাটু দ্রুত নিরাময়ের জন্য পুল, হট টব, নদী, হ্রদ এর জল থেকে যতটা সম্ভব ঐ স্থান দূরে রাখুন।
  5. পোশাক বাছাইয়ে সচেতন হোন। আঁটসাঁট পোশাক ট্যাটুযুক্ত ত্বকের জন্য ক্ষতি ডেকে আনতে পারে।
  6. নিরাময়ের জন্য 2 সপ্তাহ পর্যন্ত সময় দিন। কোনও ভাবেই ট্যাটুযুক্ত ত্বক চুলকানো যাবে না, যেহেতু ট্যাটুযুক্ত স্কিন ড্রাই থাকে তাই স্কিনের ড্রাই সেল উঠে। কোনোভাবেই এই ড্রাইসেল ঘষে ঘষে উঠানো যাবে না। কারণ এটা সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ায় যা ডিজাইনের ক্ষতি করতে এবং ক্ষত সৃষ্টি করতে পারে।

যদি মন হয় যে আপনার ট্যাটু সংক্রামিত হতে পারে বা আপনার ট্যাটু ঠিকমতো নিরাময় হচ্ছে না সে বিষয়ে দুঃশ্চিন্তাগ্রস্ত না হয়ে ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করুন। আর যদি ট্যাটুটি আপনার প্রত্যাশিত ভাবে না হয় এবং আপনি চাচ্ছেন যে ট্যাটুটি অপসারণ করতে, তবে একজন বিশেষজ্ঞ ডার্মাটোলোজিস্টের শরণাপন্ন হয়ে তার পরামর্শ নেওয়াটাই শ্রেয়।

Source :
১. https://m.health24.com/Medical/Skin/About-skin/5-dangerous-health-risks-of-tattoos-20180504
২. http://www.cyberknifeoc.com/will-tattoos-cause-skin-cancer/
৩.https://www.mayoclinic.org/healthy-lifestyle/adult-health/in-depth/tattoos-and-piercings/art-20045067

আগের পর্বটি পড়তে এখানে ক্লিক করুন

আপনার মতামত লিখুন :

ট্যাগ
Back to top button
Close