ভিডিও গেমস

Sara Is Missing : Creepiest Game Ever

সারা ইস মিসিং : খুঁজতে যাবেন?

ধরুন আপনি কোনোভাবে একজন অপরিচিত মানুষের ফোন পেয়েছেন। তাও আবার একজন যুবতীর, যে প্রেত নিয়ে গবেষণা করে বা পড়াশুনা করে। এমন একজন মানুষের ফোনে আপনি কি পেতে পারেন? সেই ফোনটাই হতে পারে আপনার দুঃস্বপ্নের কারণ। দুটো খুনের অংশীদার হতে যাচ্ছেন আপনি। সাবধান Sara is Missing !

Sara Is Missing এর কাহিনী একটু নাটকীয়ভাবে উপস্থাপনের চেষ্টা করলাম। তবে যতটুকু লিখেছি পুরোটাই সত্য। এটা ফাউন্ড ফুটেজ হরর স্টাইলের গেম। আমি যেহেতু হার্ডকোর গেমার না, ছোটখাট গেমগুলোর প্রতি আমার আগ্রহ বেশি। তাই SIM আমার কাছে ইউনিক কাহিনীযুক্ত আকর্ষণীয় একটা গেম মনে হয়েছে। খুবই ছোট সময়ের হরর গেম। গেমটা খেলতে সর্বোচ্চ আধা ঘন্টা লাগবে এর বেশি না। হরর আর আর্টিফিসিয়াল ইন্টাললিজেন্স এর চমৎকার একটা মিশ্রণ আছে এতে। অনেকেই ক্রিপিয়েস্ট গেম এভার হিসেবে SIM : SARA IS MISSING কে আখ্যায়িত করেছে।

গেমের শিক্ষণীয় একটা দিক হলো, এটা আঙ্গুল তুলে দেখিয়ে দেয় আমরা যে এত পরিমাণে পার্সোনাল ডাটা নিজের ফোনে রাখছি, সেই ডাটা অন্য কারো হাতে পড়লে কতটা ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে।

খুঁটিনাটি

গেমটা তৈরি করা হয়েছে REPLICA নামের এক পিসি গেমের অনুপ্রেরণায়। উইন্ডোজ, আইওএস, এন্ড্রয়েড এ এই গেম পাওয়া যাচ্ছে। ছোটখাট সাইজের অফলাইন গেম। এন্ড্রয়েড ৪.১ থেকে খেলা যাবে। মূল ডেভেলপার MONSOON LAB হলেও প্রকাশক এর নাম KAIGAN GAMES। এটা একটা মালয়েশিয়ান গেম, ২০১৬ সালে লঞ্চ হয়েছিলো। প্লে স্টোরে এ পর্যন্ত ১ মিলিয়ন ডাউনলোড হয়েছে।

গেমপ্লে

SARA IS MISSING আপনাকে অনেকটা এরকম বার্তা দিবে “কুড়িয়ে পাওয়া জিনিস সবসময় ভালো হয় না”। আর যদি ফোনটা ড্যামেজড হয় এবং সাথে থাকে অদ্ভুত এআই, তাহলে তো একদমই না।সারা ইস মিসিং

ছোটখাট ভৌতিক কাহিনী। SARA YOUNG নামের এক মেয়ে প্যারানোরমাল, ব্ল্যাক ম্যাজিক নিয়ে গবেষণা করে। কোনোভাবে আপনি তার ফোন পেয়েছেন, যদিও “কিভাবে?” সেই কারণটা স্পষ্ট বলা নেই। ফোনটা প্রায় ড্যামেজ হয়ে আছে। যেটার ১৪.৩% ডাটা রিকভার সম্ভব। এই ড্যামেজের কারন দেখিয়েই ফোনের ব্রাউজিং এলিমেন্ট সীমাবদ্ধ করে দেয়া হবে। ফলে আপনি দোষ দিতে পারবেন না “আর কিছু করা যায় না কেন?” । যেটা অনেক ভালো একটা এক্সকিউজ।

Sara is missing

গুগল এসিস্ট্যান্ট, সিরির মত এখানে একটা এআই আছে যাকে IRIS (Intelligent Recognitive Iconolatry System) বলা হয়। গেমের শুরু থেকেই IRIS আপনাকে সাহায্য করবে সারাকে খুজতে। আপনার মিশন হবে সারাকে খুজে, তার জীবন বাঁচানো। খুবই সহজ-সরল একটা কাহিনী। আর না পারলে IRIS আপনাকে এক হাত দেখে নিবে ।

গ্রাফিক্স ও অন্যান্য

গেম খেলার সময় আপনার কখনো কখনো মনে হবে “আপনার হাতের ফোনটা সারা ইয়ং এর”। সত্যি বলছি, আস্ত ফোনটার অপারেটিং সিস্টেম যেনো এই গেমটা পরিবর্তন করে ফেলেছে। হুবুহু একটা ফোনের ইন্টারফেস ডেভেলপাররা নিয়ে আসতে পেরেছে, যেটা প্রশংসার দাবি রাখে।
গেমে একটা গান আছে, গ্যালারিতে বেশ কিছু ছবি আছে, ভিডিও আছে।

Creepiest game ever

সব ছবি ও ভিডিওগুলো বাছাই করা হয়েছে সঠিকভাবে, ফলে আপনি সত্যিকার অর্থেই “অপরিচিত” মানুষের ফোনের অনুভূতি পাবেন। হরর ভিডিও ও অডিওগুলোও মোটামুটি ভয় পাওয়ানোর জন্য যথেষ্ট। মূলত ছবিগুলো ব্ল্যাক ম্যাজিক সম্পর্কিত। কিছু অপরিচিত ব্ল্যাক ম্যাজিক টার্ম পাবেন এই গেমে। আর গেমের শেষের দিকে খুনের ছবিগুলো কোনো অংশেই কম নয়। এখানে চ্যাট করতে হবে আগে থেকে প্রোগ্রাম করা বাক্যের উপর নির্ভর করে। তবে একটু রিয়ালিস্টিক করার জন্য অনস্ক্রিন কি বোর্ড রাখা হয়েছে, যেখানে নির্দিষ্ট বাক্য লিখতে হবে টাইপ করে।
এই বর্ননা থেকে আশা করি বুঝতে পারছেন গ্রাফিক্স নিয়ে আপনাকে আশাহত হতে হবে না।

মিথস্ক্রিয়া

পুরো গেমটাকে সত্যিকার এবং ভয়ঙ্কর বানানোর জন্য উপযোগী সবকিছুরই ব্যবহার হয়েছে এই গেমে। আমরা ফোনে কি করি? গেম খেলি, ছবি তুলি, ফোন করি, ব্রাউজিং করি, মেসেজ করি, ইমেইল করি। গেমে আপনারা প্রায় সবরকম কাজ করতে পারবেন যেগুলো আমরা ফোনে করি। তবে অনুপস্থিত থাকবে ছবি তোলা, ব্রাউজিং, গেম খেলা। এর পরবর্তী গেম SIMULACRA তে ব্রাউজিং, সোশ্যাল নেটওয়ার্কিংও যুক্ত হয়েছে। SIMULACRA নিয়ে রিভিউ আসছে শীঘ্রই।

পুরো গেমে অর্ধেকের বেশি সময় কাটবে চ্যাট করে। IRIS, AYA, FAITH, JAMES, IRIJU ইত্যাদি চরিত্রের সাথে চ্যাট করেই খুঁজতে হবে সারাকে। রিয়াল চ্যাট ফিলিং পাবেন। রিয়াল টাইম চ্যাট ফিলিংস এর জন্য তারা সবরকম চেষ্টা করেছে। চ্যাট ডায়লগ গুলো একদম স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করেছে যেভাবে আমরা প্রতিদিনের জীবনে কথা বলি। এদের মধ্যে সবথেকে ইন্টারেস্টিং চরিত্র হচ্ছে এআই IRIS। এর আচরণ অনেকটাই মানুষের মত। এটাই আপনাকে উদাহরণ দেবে ভবিষ্যতের এআই কেমন হতে যাচ্ছে। চ্যাটের উদাহরণ দিচ্ছি।


গেমে ফোন কলও রয়েছে, তবে খুবই অল্প সময়ের জন্য। ফোন কলটাও সত্যিকার অনুভূতি দিবে।

টাস্ক

মূল লক্ষ্য সারাকে বাঁচানো হলেও, এর মাঝখানে আরো কিছু টাস্কিং আছে। এগুলোকে পাজল বলাই ভালো, আপনাকে কিছু কাজ করতে বলা হবে যেগুলোর উত্তর লুকিয়ে আছে গেমের ভেতরেই। সেখান থেকেই খুঁজে বের করতে হবে উত্তর।

কখনো কন্টাক্ট হিস্ট্রি চেক করতে হবে, গ্যালারির পাসওয়ার্ড খুঁজতে হবে, মেসেজ চেক করতে হবে, ইমেল চেক করতে হবে ইত্যাদি ইত্যাদি। টাস্কিং গুলো করানো হবে আপনাকে ফোর্স করে।
গেমের ফলাফল কিন্তু একটা না, একাধিক ফলাফল আছে। তবে আমি দুইটার বেশি এন্ডিং দেখি নাই।

সর্বশেষে

অন্যান্যদের ফোন নিয়ে আমাদের কম বেশি আগ্রহ আছে। বিশেষ করে ফোনের পার্সোনাল ব্যাপার স্যাপার নিয়ে। এই গেম পুরোপুরি সেই আগ্রহ মেটাতে পারবেনা। যতটুকু পারবে সেটাই বা কম কিসে? আবার এই গেম যে সবার ভালো লাগবে এমনটাও না। আগেই বলেছি, আমার এই ধরনের গেমগুলোই পছন্দের। যদি আপনি তুখর গেমার হন, গেমে খুনোখুনি আর চরম থ্রিল না থাকলে চলেই না, সেক্ষেত্রে আমি কিছু বলতে পারছি না। তবে একটু ভিন্ন ধর্মী গেম খেলা যেতেই পারে, ১৫-২০ মিনিটের ব্যাপার।
গেমের একটা খারাপ দিক হলো, এই গেম এক দুইবার খেলার পর আর আগের মত ফিলিংস পাবেন না। ওয়ান টাইম গেম আর কি!

তাহলে উপভোগ করে ফেলুন চমৎকার এই গেমটি। টাকা পয়সার ঝামেলা নেই, ফ্রি গেম। এর পরবর্তী গেম SIMULACRA এর রিভিউও আসছে।

আপনার মতামত লিখুন :

উৎস
MMOHUTSItch.io
ট্যাগ

2 মন্তব্য

  1. বহুদিন হলো কোনো গেম খেলি না। তোমার এই রিভিউ পরে এই গেমটা খেলতে ইচ্ছা করছে। এরকম আজগুবি টাইপের গেমগুলো ভালোই লাগে আমার।

    এখানে যে চ্যাটের কথা বললা সেখানে ইচ্ছামত চ্যাট করা যায় নাকি প্রোগ্রাম করা নির্দিষ্ট কিছু কথা বলা যায়?

  2. প্রোগ্রাম করাই, ইচ্ছা মত লিখলে উত্তর দিবে কে? তবে সত্যিকার ফিলিংস আনার জন্য কি বোর্ড আছে। কি বোর্ডে চাপ দিয়ে প্রোগ্রাম করা লেখাটা লিখতে হয়। SIM যেহেতু খেলছেন, SIMULACRA না খেলে থাকলে সেটা খেলে ফেলেন। ওটা SIM এর থেকেও চমৎকার বানাইছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Back to top button
Close