নবায়নযোগ্য শক্তিপরিবেশপ্রযুক্তি

সোলার প্যানেল স্থাপনের হিসাব-নিকাশ

সময় এসেছে নবায়নযোগ্য জ্বালানির দিকে ঝুকে পড়ার, ক্লিন/গ্রিন এনার্জির বাংলাদেশ গড়তে এর বিকল্প নেই, কিন্তু কিভাবে দেশের আমজনতা এই কাজে ভূমিকা রাখবে??

যতক্ষন না জনগণ নিজে থেকে যুক্ত হচ্ছে, ততক্ষন পর্যন্ত সরকারের একার পক্ষে দেশে নবায়নযোগ্য(সোলার প্যানেল) জ্বালানির বিস্তার সেভাবে ছড়িয়ে দেওয়া সম্ভব হবে না।

সোলার প্যানেল

দেশের জনগণ যদি নিজের বাসাবাড়িতে ব্যক্তিউদ্দ্যোগে সোলার প্যানেল বসানোর ব্যবস্থা নেয়, তাহলে একদিকে যেমন গ্রিন এনার্জি্র উত্থান ঘটবে অপরদিকে বিদ্যুতবিলের হাত থেকেও মুক্তি মিলবে একাধারে ২০-২৫ বছরের জন্যে।

এখন বাংলাদেশ সরকার বাসাবাড়ি, সরকারি বেসরকারী অফিস আদালত ,স্কুল কলেজে সোলার প্যানেল বসানোর জন্য প্রণোদনা দিচ্ছে, উৎসাহিত করছে।

দেশের সচে্তন নাগরিক হিসেবে সামর্থ্যবান সবারই নিজেদের বাসাবাড়িতে সোলার প্যানেল স্থাপন করা উচিত, এতে করে অতিরিক্ত বিদ্যুত যেমন গ্রিডের মাধ্যমে কানেক্ট করে বিক্রি করতে পারবে, অপরদিকে বিদ্যুত দরকার হলে গ্রিড থেকেও নিতে পারবে, দ্বিপাক্ষিক চুক্তির মত।

তো আজকের আমাদের এই আর্টিকেলে আমরা আপনাদের জানাবো কিভাবে বাসাবাড়ি/অফিসআদালতে সোলার প্যানেল স্থাপন করতে পারেন এবং এর যাবতীয় হিসাবনিকাশ।

ছবিতে দেখে নিনঃ কি কি যন্ত্রপাতির দরকার পড়বে

যন্ত্রপাতি

তো চলুন শুরু করা যাকঃ

  • প্রথমেই আপনাকে যে কাজটি করতে হবে তা হল, আপনার ব্যবহৃত লোড মোট কত ওয়াটের তা জানতে হবে।
ItemsQuantity(S)Power Of Each
Quantity(Watt)
Hours
Used (Hrs)
Total
Energy(Kwh)
Used
Day(Days)
Annual
Consumption(Kwh)
LIGHT79w7.441kwh365161kwh
FAN370w122.52kwh180454kwh
TUBE
LIGHT
125w4.10kwh35035kwh
MOTOR11000W22kwh365730kwh
TV1200w81.6kwh365584kwh
Hair
dryer
1702.14kwh486.72kwh
Total  6.8kwh1971kwh
বাসাবাড়ির লোডের হিসাব

টেবিল থেকে দেখা যাচ্ছে, টোটাল ব্যবহৃত এনার্জিঃ ৬.৮কিলোওয়াটঘন্ট

(হিসাব দেখানো  হয়েছে শুধুমাত্র, বাসাবাড়ির সাথে মিল রেখে)

এখন আমাদের কি পরিমাণ সোলার প্যানেল থেকে এই পরিমাণ এনার্জি পাবো, তা পেতে হলে সোলার প্যানেলের ৩০% লস বাবদ হিসাব করতে হবে, ফলে মোট এনার্জি দাঁড়ায় গিয়েঃ

৬.৮*১.৩= ৮.৯ কিলোওয়াটঘন্টা/দিন

এবার আমাদের সোলার প্যানেলের ওয়াট রেটিং দিয়ে ভাগ করে সোলার প্যানেলের ক্যাপাসিটি জানতে হবে।

তার জন্যে আমাদের বাংলাদেশের জন্যে সোলার প্যানেল জেনারেশন ফ্যাক্টর হিসাবে নিতে হবে, বাংলাদেশের পরিপ্রেক্ষিতে এর মান ৫।

টোটাল যে ক্যাপাসিটির সোলার প্যানেল দরকার তা হলঃ মোট এনার্জি/৫= ৮৯০০/৫= ১৭৮০ ওয়াট পাওয়ার

এবার আসি, সোলার প্যানেলের সংখ্যার বিষয়েঃ

এটি বের করতে হলে আমাদের আগে জানতে হবে যে বাজারে কি কি মানের প্যানেল পাওয়া যায়, যে যে মানের প্যানেল পাওয়া যায় তা হলঃ ৮৫/১০০/১১০/২০০/৩৭৫ওয়াট আমরা ৩৭৫ ওয়াটের প্যানেল ইউজ করব, তো আমাদের তাহলে যে কয়টি সোলার প্যানেল লাগবে তা হলঃ ১৭৮০/৩৬৫ =৪.৮৭ =৫ টি (সোলার প্যানেল ভগ্নাংশ হয়না, তাই রাউন্ড করে বেশি মানের টা নিতে হবে)

 তো ইনভার্টারের রেটিং হবেঃ ১৫৬১ওয়াট*১.৩= ১৯৪২ওয়াটের= ২ কি্লোওয়াটের নিলেই হবে।

এবার ব্যাটারির ব্যাপারঃ

আমরা ১২ভোল্টের ব্যাটারি ব্যবহার করব, এবং দুইদিনের ব্যাকাপ হিসাব করবো।

তো ব্যাটারির হিসাবের প্রসেস হলঃ

ব্যাটারি ইফিসিয়েন্সীঃ ৮৫%

ব্যাটারি ডেপথ অফ ডিসচার্জঃ ৬০%

এবার সেই ব্যাটারির চার্জ কনট্রোলার এর হিসাবে আসতে হবে, যাতে সকল লোড ঠিকমত ভোল্টেজ রিসিভ করতে পারে।

তার জন্যে আমাদের সোলার প্যানেলের রেটিং বক্স থেকে শর্ট সার্কিট কারেন্ট এর মান জানতে হবে এবং তার সাথে প্যানেলের সংখ্যা ও ১.৩ গুন করতে হবে ।

ছবি থেকে দেখা যাচ্ছে, ৩৭৫ওয়াটের সোলার প্যানেলের জন্যে শর্ট সার্কিট কারেন্ট ৯.৯০ এম্পিয়ার

প্যানেল স্পেসিফিকেশন

এবার কন্ট্রোলার রেটিংঃ ৫*১.৩*৯.৯০= ৬৫ এম্পিয়ার, ১২ ভোল্ট

পুরা প্রসেস ব্যখ্যা করে দেখানো হল, প্রশ্ন থাকলে করতে পারেন

দাম জানতে চেক করুনঃ https://www.rahimafrooz.com

সোর্সঃ http://www.leonics.com/support/article2_12j/articles2_12j_en.php

আপনার মতামত লিখুন :

ট্যাগ
Back to top button
Close